কুকুরের আক্রমণ থেকে বোনকে রক্ষা, ভাইয়ের মুখে ৯০ সেলাই

আপডেট: জুলাই ১৭, ২০২০, ৪:৩৬ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক:


চার বছর বয়সী মেয়েটিকে হঠাৎ আক্রমণ করে একটি জার্মান শেফার্ড কুকুর। সেই আক্রমণ থেকে তাকে বাঁচাতে ছুটে আসে তার ৬ বছর বয়সী ভাই ব্রিজার ওয়াকার। তবে কুকুরের আক্রমণ থেকে বোনকে বাঁচাতে পারলেও নিজে আক্রমণের শিকার হয় ব্রিজার। এতে সে মারাত্মকভাবে জখম হয়। পরে ব্রিজারের মুখে ৯০টি সেলাই দেয়া হয়েছে।
গত ৯ জুলাই যুক্তরাষ্ট্রের উয়োমিং রাজ্যে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাটি জানাজানি হওয়ার পর ব্রিজারের সাহসিকতার প্রশংসা করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের অভিনেত্রী অ্যান হ্যাথওয়েসহ অনেকেই।
ওই শিশুটির পরিবারের বরাত দিয়ে সিএনএনের প্রতিবেদনে বলা হয়, কুকুরটি যখন ব্রিজারের বোনকে আক্রমণ করে তখন সে ছুটে আসে। কুকুরটি পালিয়ে না গিয়ে রক্ষাকারী ভাইয়ের ওপর আক্রমণ করে বসে। কুকুরটি ব্রিজারের মুখে আঘাত করে। পরে সে দুই ঘণ্টার সার্জারিতে ছিল। সার্জারিতে তার মুখে ৯০টি সেলাই দেয়া হয়েছে।
ব্রিজারের বাবা বোনকে বাঁচাতে তার এগিয়ে আসার কারণ জানতে চান। তখন ব্রিজার বলে, ‘আমি ভেবেছিলাম, এই কুকুরের হামলায় যদি কারও মৃত্যু হয় তাহলে সেটা আমারই হোক।’
ব্রিজারের এক আত্মীয় ইনস্টাগ্রামে এক পোস্টের মাধ্যমে ব্রিজারের এই ঘটনা জানান। পরে সেটা অ্যান হ্যাথওয়ের নজরে আসে। তিনি ব্রিজার ওয়াকারের সাহসিকতা নিয়ে একটি ইনস্টাগ্রাম পোস্ট দেন, যেখানে দশ লাখ লাইক ও হাজার হাজার মন্তব্য পড়েছে। প্রচুর মানুষ পোস্টটি শেয়ার করেছে। মূলত এই পোস্টের মাধ্যমেই ঘটনাটি সবার নজরে আসে।
তথ্যসূত্র: জাগোনিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ