চিনকে ঠেকাতে সাড়ে ৩ লাখ কোটি ডলার বিনিয়োগ করছে ইইউ

আপডেট: ডিসেম্বর ২, ২০২১, ১:০৫ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক :


চিনের প্রভাব ঠেকাতে বিশ্বে তিন লাখ ৪০ হাজার কোটি মার্কিন ডলার বিনিয়োগ করতে যাচ্ছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)। বুধবার এ সংক্রান্ত বিস্তারিত প্রকাশ করা হয়েছে।
ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্ট উরসুলা ভন ডের লিয়েন জানিয়েছেন, গেøাবাল গেটওয়ে নামের এই প্রকল্পটির একটি বিশ্বস্ত ব্র্যান্ড হওয়া উচিত। একে চিনের বেল্ট অ্যান্ড রোড প্রকল্পের ‘সত্যিকারের বিকল্প’ হিসেবেও আখ্যা দিয়েছেন তিনি।

বেল্ট অ্যান্ড রোড প্রকল্পের আওতায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশে চিন রেল, সড়ক ও বন্দরসহ অবকাঠামোখাতে বিনিয়োগ করে থাকে। তবে বেইজিংয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ, বিনিয়োগ ও সহযোগিতার নামে অনেক দেশকে ঋণের জালে আটকে ফেলেছে বেইজিং। ইতোমধ্যে আফ্রিকা, এশিয়া, ইন্দো প্রশান্ত মহাসাগরীয় এবং ইউরোপীয় অঞ্চলে পৌঁছে গেছে চিনা বিনিয়োগ। পাইরাসে গ্রিক কনটেইনার বন্দরের দুই-তৃতীয়াংশের মালিক চিনের কসকো কোম্পানি এবং চায়না রোড অ্যান্ড ব্রিজ করপোরেশন ক্রোয়েশিয়ায় একটি বড় সেতু নির্মাণ করেছে।

সদস্য রাষ্ট্র, আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও বেসরকারি খাত থেকে বিনিয়োগের জন্য লাখ লাখ ইউরো কীভাবে পাওয়া যাবে সে বিষয়টি খতিয়ে দেখছে ইইউ। এটি মূলত অনুদানের পরিবর্তে গ্যারান্টি বা ঋণের রূপ নেবে।

ভন ডের লিয়েন জানিয়েছেন, ইইউ দেখাতে চায় যে, একটি ভিন্ন, গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ার মাধ্যমে এমন প্রকল্প দেওয়া যেতে পারে যা জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলার পাশাপাশি বিশ্বব্যাপী স্বাস্থ্য সুরক্ষা এবং উন্নয়নশীল দেশগুলোর জন্য টেকসই উন্নয়নের উপর মনোযোগ দেবে। প্রকল্পগুলো উচ্চমানের হতে হবে, উচ্চস্তরের স্বচ্ছতা ও সুশাসনসহ সংশ্লিষ্ট দেশগুলোর জন্য বাস্তব ফল বয়ে আনবে।

ইইউর এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, গ্লোবাল গেটওয়ে প্রকল্পে আফ্রিকা অঞ্চরের প্রতি বেশি মনোযোগ দেওয়া হবে।
তথ্যসূত্র: রাইজিংবিডি

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ