দিনাজপুরে এক শিশু ও তিন নারীসহ বজ্রপাতে আট জনের মৃত্যু আহত সাত

আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৭, ১২:৩৮ পূর্বাহ্ণ

দিনাজপুর প্রতিনিধি


দিনাজপুরে বজ্রপাতে এক শিশু, তিন মহিলাসহ আট জনের মৃত্যু হয়েছে। গুরুতর আহত ছয় জনকে এম আবদুুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, গতকাল শনিবার দুপুর ২টার দিকে বিরল উপজেলার আজিমপুর ইউনিয়নের রাজারামপুর গ্রামে বজ্রাঘাতে দুইজন নারীসহ ছয় জন কৃষি শ্রমিকের মৃত্যু ঘটেছে। আহতদের দিনাজপুর এম আবদুুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
স্থানীয়রা জানান, জমিতে কাজ করার সময় বজ্রসহ বৃষ্টি শুরু হলে জমির একপাশে বিশ্রাম নেয়ার খড়ের তৈরি ছোট একটি কুড়ে ঘরে আশ্রয় নেয় ১২জন কৃষি শ্রমিক। এসময় ওই ঘরের উপর বজ্রপাত ঘটলে আগুন ধরে ঘরটি ভুষ্মিভুত হয়। এতে গুরুতর আহত হন কৃষি শ্রমিক সুকুমার রায়, মল্লিক রায়, জোস্না রানী, বলিরাম, সাইদুল এবং ললিত।
এ ঘটনায় নিহতরা হলেন বিরল উপজেলার আজিমপুর ইউনিয়নের রাজারামপুর এলাকার মৃত হরিপদ রায়ের ছেলে কুশন চন্দ্র রায় ও তার বড় বোন বনিতা রায় এবং মুক্তি রানী রায়, সদর উপজেলার মহাদেবপুর গ্রামের আবদুুল লতিফের ছেলে মেছের আলী (৩৬) এবং একই গ্রামের মোস্তাক আলীর ছেলে শুকুর উদ্দিন মিয়া (৪০)। নিহত অন্য জনের নাম পরিচয় জানা যায় নি।
এদিকে গতকাল দুপুরে বাড়ির পাশের ড্রেনে মাছ মারার সময় বজ্রপাতে বিরল উপজেলার মোকলেসপুর জয়হার গ্রামের হেলাল উদ্দীনের ছেলে শিশু আরিফ হোসেন রিদয় নিহত হয়।
অন্যদিকে গতকাল ভোরে চিরিরবন্দর উপজেলার সাইতারা ইউনিয়নের চকরামপুর গ্রামে বজ্রপাতে গরু রক্ষা করতে গিয়ে গৃহবধূ হালিমা বেগম মারা যান। হালিমা ওই এলাকার শহিদুল ইসলামের স্ত্রী। এসময় তার গরুটিও মারা যায়।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ