নতুন সংসার গড়তে প্রথম পক্ষের দুই সন্তানকে খুন! চিনে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর যুগলের

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২, ২০২৪, ৪:৪৬ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক :দুই শিশু সন্তানকে ১৫ তলা ভবনের জানলা দিয়ে নীচে ছুড়ে ফেলা! নতুন করে ঘর বাঁধার স্বপ্ন দেখে এই ভয়ানক কাজই করেছিল এক চিনা দম্পতি। ঘটনাটি ২০২০ সালের। দুই বছর আগেই তাদের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছিল চিনা সুপ্রিম কোর্ট। বৃহস্পতিবার (১ ফেব্রুয়ারি) প্রাণঘাতী ইনজেকশন দিয়ে তাদের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে।

দুই অভিযুক্তের নাম ঝাং বো ও ই চেংচেন। ২০১৯ সাল থেকে দু’ই জনের মধ্যে বিয়েবহির্ভূত সম্পর্ক গড়ে ওঠে। ওইসময় বিবাহিত ছিলেন ঝাং। দুই সন্তানও ছিল তাঁর। শেষ পর্যন্ত স্ত্রীকে ছেড়ে চেংচেনের সঙ্গে থাকার সিদ্ধান্ত নেন। ২০২০ সালে স্ত্রীকে ডিভোর্স দিয়ে বান্ধবীর সঙ্গে থাকতে শুরু করেন ঝাং। দুই সন্তানকেও নিজের সঙ্গে নিয়ে আসেন ঝাং।

কিন্তু গোটা ঘটনায় প্রবল বিরক্ত ছিলেন চেংচেন। তাঁর মনে হয়েছিল, ঝানের সঙ্গে নতুন জীবন শুরু করার পথে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে দুই শিশু সন্তান। তাই ঝাংকে জোর করতে শুরু করেন, যেন দুই সন্তানকে হত্যা করেন তিনি। শেষ পর্যন্ত ১৫ তলার জানলা থেকে দুই বছরের কন্যা ও এক বছরের পুত্রকে ছুঁড়ে ফেলেন ঝাং।

দুই সন্তানের মৃত্যুতে স্তম্ভিত হয়ে যান ঝাঙের প্রাক্তন স্ত্রী। আদালতে তোলেন প্রাক্তন স্বামী ও তাঁর প্রেমিকাকে। শেষ পর্যন্ত আটক করা হয় যুগলকে। বছর দুয়েক আগেই ঝাং ও চেংচেনকে মৃত্যুদণ্ড দেয় চিনের সুপ্রিম কোর্ট। বৃহস্পতিবার বিষাক্ত ইঞ্জেকশনের মাধ্যমে তাঁদের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করে স্থানীয় প্রশাসন।
তথ্যসূত্র: আজকাল অনলাইন