পাকিস্তানে মিসাইল-ড্রোন হামলা ইরানের, পালটা মারের হুঁশিয়ারি ইসলামাবাদের

আপডেট: জানুয়ারি ১৭, ২০২৪, ১:৫৬ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক :


এবার পাকিস্তানে মিসাইল হামলা চালাল ইরান। মঙ্গলবার (১৬ জানুয়ারি) পাকিস্তানের জঙ্গিগোষ্ঠী জইশ আল আদলের একাধিক ঘাঁটিতে আছড়ে পড়ে তেহরানের ছোড়া ক্ষেপণাস্ত্র। এদিকে, এমন হামলার ভয়াবহ ফল হতে পারে বলে পালটা হুমকি দিয়েছে ইসলামাবাদ।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম সূত্রের খবর, পাকিস্তানের সবথেকে বড় প্রদেশ বালোচিস্তানে জইশ আল-আদলের ঘাঁটি গুঁড়িয়ে দিয়েছে ইরানের এলিট রেভোলিউশনারি গার্ড। ইরানের সরকার নিয়ন্ত্রিত সংবাদ সংস্থা আইআরএনএ জানায়, হামলায় ক্ষেপণাস্ত্র এবং ড্রোন ব্যবহার করা হয়েছে।
তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে, সোমবার ইরাক এবং সিরিয়ায় কুর্দ বিদ্রোহী তথা ইসরায়েলের গুপ্তচর সংস্থা মোসাদের দপ্তরে হামলা চালায় ইরানের সেনা।

এদিকে, এমন হামলার ভয়াবহ ফল হতে পারে বলে পালটা হুমকি দিয়েছে ইসলামাবাদ। তাদের দাবি ইরানের মিসাইল হামলায় দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে। উল্লেখ্য, গত রোববার দুদিনের ইরান সফরে তেহরান যান ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শংকর। ইসলামিক দেশটির প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসির সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন তিনি। চাবাহার বন্দর ও লোহিত সাগরে হুথি হামলা নিয়ে আলোচনা হয় দুজনের মধ্যে বলে খবর। এই প্রেক্ষাপটে পাকিস্তানে রেভোলিউশনারি গার্ডের ড্রোন হামলা তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছেন অনেকে।

তবে বিশ্লেষকদের একাংশের মতে, এই হামলার সঙ্গে জয়শংকরের সফরের কোনো যোগ নেই। অতীতে বহুবার ইরানের বাহিনীর উপর হামলা চালিয়েছে সুন্নি জঙ্গিগোষ্ঠী জইশ আল আদলের। ইরান সীমান্তে একাধিক বোমা বিস্ফোরণ এবং পুলিশের একাধিক অফিসারকে অপহরণের দায় স্বীকার করেছে তারা। এই গোষ্ঠীর জন্ম হয়েছে ২০১২ সালে।

মূলত পাকিস্তানের সীমান্ত এলাকায় সেই জঙ্গিগোষ্ঠী সন্ত্রাসমূলক কাজকর্ম করে থাকে। এই বিষয়ে বারবার ইসলামাবাদকে জানিয়েও কোনেরা লাভ হয়নি বলে দাবি করেছে তেহরান। তাই সন্ত্রাস দমনে এহেন হামলা বলে রাইসি প্রশাসনের আধিকারিকরা জানিয়েছেন।
তথ্যসূত্র: সংবাদ প্রতিদিন অনলাইন