পুঠিয়া পৌরসভার মেয়র পদে শপথ নিলেন রবি

আপডেট: মার্চ ২৪, ২০১৭, ১২:১৪ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনারের সভাকক্ষে বিভাগীয় কমিশনার নূর-উর- রহমান পুঠিয়ার মেয়র হিসেবে রবিউল ইসলাম রবিকে শপথবাক্য পাঠ করান। এসময় উপস্থিত ছিলেন, স্থানীয় সরকার বিভাগের পরিচালক শ্যাম কিশোর রায়, উপপরিচালক শাওগাতুল আলম ও পুঠিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) নাজমা নাহার –                                                                                                                                                 সোনার দেশ

অবশেষে রাজশাহীর পুঠিয়া পৌরসভার মেয়র হিসেবে শপথ নিলেন রবিউল ইসলাম রবি। গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনারের সভাকক্ষে বিভাগীয় কমিশনার নূর-উর- রহমান তাকে শপথবাক্য পাঠ করান। এসময় উপস্থিত ছিলেন, স্থানীয় সরকার বিভাগের পরিচালক শ্যাম কিশোর রায়, উপপরিচালক শাওগাতুল আলম ও পুঠিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) নাজমা নাহার।
উল্লেখ্য যে, গত ৩০ ডিসেম্বর ২০১৫ সালে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী আসাদুল হককে (ধানের শীষ) ২৭১ ভোটে বিজয়ী ঘোষণা করেন রিটার্নিং অফিসার। ওই আদেশের বিরুদ্ধে পরাজিত মেয়র প্রার্থী রবিউল ইসলাম রবি রাজশাহীর নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে মামলা (৪/২০১৬) করেন। গত ২৪ নভেম্বর ২০১৬ সালে নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে মেয়র প্রার্থীর ভোট পুনগণনায় বৈধ ভোট সংখ্যা ১১ হাজার ৫৫১টি এবং অবৈধ ভোটের সংখ্যা ৪৫২টি ঘোষিত হয়। দরখাস্তকারী রবিউল ইসলাম রবি নৌকা প্রতীক ৪ হাজার ১৪২ ভোট এবং প্রতিপক্ষ ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী আসাদুল হক ৪ হাজার ৮৩টি ভোট

 

পেয়েছেন দেখা যায়। ফলে ৫৯ ভোটে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী রবিউল ইসলাম রবিকে বিজয়ী ঘোষণা করেন নির্বাচনী ট্রাইব্যুনাল। এরপর গত ১৩ ফেব্রুয়ারি রাজশাহীর নির্বাচনী আপীল ট্রাইব্যুনালেও নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালের আদেশ বহাল রাখেন। ওই আদেশের কপি পেয়ে নির্বাচন কমিশন গত ২০ মার্চ রবিউল ইসলাম রবিকে পুঠিয়া পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত ঘোষণা করে গেজেট প্রকাশ করে।
শপথ নেয়ার পর উপস্থিত গণমাধ্যমকর্মীদের মেয়র রবি তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, এ বিজয় আমার একার নয়, এ বিজয় পুঠিয়া পৌরবাসীর। এ বিজয় রাজশাহী-৫ (পুঠিয়া-দুর্গাপুর) আসনের সাংসদ আব্দুল ওয়াদুদ দারার। পুঠিয়া পৌরসভাকে একটি আধুনিক পৌরসভায় পরিণত করা হবে। পুঠিয়া পৌরবাসীর জন্য আমার দরজা সবসময় খোলা থাকবে।
এদিকে শপথ নেয়ার পর রবিউল ইসলাম রবি জাতীয় চার নেতার অন্যতম শহিদ এএইচএম কামারুজ্জামান, পুঠিয়ার বিড়ালদহ মাজার ও মরহুম আওয়ামী লীগ নেতা কাজী আবদুল আওয়ালের মাজার জিয়ারত করেন। এরপর পুঠিয়া পৌরসভায় গিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্বভার গ্রহণ করেন।