বাঘায় নাতির অপরাধে শালিসে বৃদ্ধ নানার জরিমানা ও কানধরে উঠবস

আপডেট: জুন ২৮, ২০২২, ১০:০১ অপরাহ্ণ

বাঘা (রাজশাহী) প্রতিনিধি:


রাজশাহীর বাঘায় নাতির অপরাধে শালিসে বৃদ্ধ নানা ছিদ্দিক ব্যাপারির ১০ হাজার টাকা জরিমানা ও কানধরে উঠবস করানো হয়েছে। এ বিষয়ে সে অপমানিত হয়েছেন বলে মঙ্গলবার (২৮ জুন) বাঘা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

জানা যায়, উপজেলার পদ্মার মধ্যে চকরাজাপুর ইউনিয়নের দাদপুর চরের ছিদ্দিক ব্যাপারির নাতি রকিবুল ইসলাম (৮) কালিদাসখালী চরের মুদি ব্যবসায়ী স্বপন আলী বাড়ি থেকে রোববার (২৬ জুন) ২ হাজার ৫০০ টাকা চুরি করে। পরে এই টাকা স্থানীয়দের সহায়তায় উদ্ধার করা হয়। পরের দিন স্বপন আলীর মুদি দোকানে চুরি হয়। এ বিষয়ে চেয়ারম্যানের কাছে অভিযোগ করেন স্বপন আলী। তারপর সোমবার (২৭ জুন) বিকালে ইউনিয়ন পরিষদের আয়োজনে শালিসের আয়োজন করা হয়।

চকরাজাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ডি এম বাবুল দেওয়ান সভাপতিত্বে ১১ জন ইউপি সদস্য ও এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে স্থানীয় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র রফিকুল ইসলামকে দোষী প্রমান তার নানা ছিদ্দিক ব্যাপারীকে (৬৩) মারধর, কানধরে ওঠ বস করিয়ে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এ বিষয়ে ছিদ্দিক ব্যাপারি অপমানিত হয়েছেন বলে মঙ্গলবার (২৮ জুন) বাঘা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

এ বিষয়ে চকরাজাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ডি এম বাবুল দেওয়ান বলেন, ছিদ্দিক ব্যাপারিকে মারধর ও কান ধরে উঠবসের মতো কোন ঘটনা ঘটেনি। স্বপন আলীর দোকানে যে টাকা চুরি হয়েছে, সেই টাকা তার কাছে থেকে উদ্ধার করা হয়েছে।
বাঘা উপজেলা শাখার বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের সাধারণ সম্পাদক শাহিনুর আলম বাবু বলেন, অপরাধীকে আইনে সোপর্দ না করে নির্যাতন করে আইন লঙ্ঘনের পাশাপাশি মানবাধিকার লঙ্ঘন করা হয়েছে।
বাঘা থানার (ওসি) তদর্ন্ত আব্দুল করিম বলেন, এই বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদর্ন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।