বিদ্যমান ‘অবাস্তব’ বাজেট পাল্টাবে শ্রীলঙ্কা

আপডেট: মে ৪, ২০২২, ৮:৫২ অপরাহ্ণ

ব্যাপক মুদ্রাস্ফীতি ও আমদানীকৃত খাদ্য, জ্বালানি ও ওষুধের সংকটের কারণে শ্রীলঙ্কায় কয়েক সপ্তাহ ধরে সরকারবিরোধী বিক্ষোভ চলছে। ছবি: রয়টার্স

সোনার দেশ ডেস্ক:


শ্রীলঙ্কার অর্থমন্ত্রী জানিয়েছেন, বিদ্যমান ‘অবাস্তব’ বাজেট প্রতিস্থাপনের পরিকল্পনা করেছেন তারা।
বুধবার দেশটির পার্লামেন্টের অধিবেশনে অর্থমন্ত্রী আলি সাবরি এমনটি জানিয়েছেন বলে খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্সের।
সাবরি আরও জানান, তারা ৩০ কোটি থেকে ৭০ কোটি ডলার সহায়তা বাড়ানোর জন্য বিশ্ব ব্যাংকের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছেন।
ভারত মহাসাগরের এ দ্বীপরাষ্ট্রটি কোভিড-১৯ মহামারীতে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার পর প্রেসিডেন্ট গোটাবায়া রাজাপাকসের সরকারের কর হ্রাসের সিদ্ধান্তে রাজস্ব ঘাটতিতে পড়ে। বিদেশি মুদ্রার তীব্র সংকটের মধ্যে দেশটি জরুরি আর্থিক সহায়তার জন্য আন্তর্জাতিক অর্থ তহবিলের (আইএমএফ) দ্বারস্থ হয়।
ব্যাপক মুদ্রাস্ফীতি ও আমদানীকৃত খাদ্য, জ্বালানি ও ওষুধের সংকটের কারণে দ্বীপটিতে কয়েক সপ্তাহ ধরে সরকারবিরোধী বিক্ষোভ চলছে, যা কখনো কখনো সহিংসতায় রূপ নিচ্ছে।
পার্লামেন্টের অধিবেশনে সাবরি বলেন, “আমাদের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় বিদ্যমান বাজেট অবাস্তব। আমরা একটি নতুন বাজেট আনবো যা সরকারি রাজস্ব কম হওয়ার মূল ইস্যুগুলো সমাধানের চেষ্টা করবে।”
সাবরি জানান, তিনি মোট দেশজ উৎপাদনের অংশ হিসেবে কর রাজস্ব বর্তমানের ৮ দশমিক ৭ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে আগামী দুই বছরের মধ্যে ১৪ শতাংশ করতে চান।
শ্রীলঙ্কার সার্বভৌম ঋণের প্রস্তাবিত পুনর্গঠনের জন্য পরবর্তী দুই সপ্তাহের মধ্যে আর্থিক ও আইনি উপদেষ্টা নিয়োগ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। সরকার কাঠামোগত সংস্কারের ক্ষেত্রে আইএমএফের সঙ্গে কাজ করতে আগ্রহী বলেও জানান তিনি।
“অর্থনীতিকে একটি টেকসই অবস্থানে আনার এটিই একমাত্র রাস্তা,” বলেন তিনি।
তথ্যসূত্র: বিডিনিউজ