ভোলাহাটে চাচাকে পেটালেন সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আনোয়ার

আপডেট: আগস্ট ১২, ২০২২, ১০:১৩ অপরাহ্ণ

ভোলাহাট প্রতিনিধি:


ভোলাহাটের ফুটানীবাজারে প্রকাশ্য দিবালোকে পিতৃতুল্য আপন চাচাকে বেধড়ক পেটালেন সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আনোয়ারুল ইসলাম ও তার ভাই মিজানুর রহমান মিজু। গত বুধবার (১০ আগস্ট) বিকেলে ভোলাহাট উপজেলা বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান প্রভাষক মো. আনোয়ারুল ইসলাম আনোয়ার ও তার ভাই চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মিজানুর রহমান মিজু ফুটানীবাজারে হাজারো মানুষের সামনে তাদের আপন চাচা আলেপনুর বিশ্বাস আলেপ (৭০) কে বেধড়ক পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছেন। তিনি এখন পর্যন্ত ভোলাহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছেন।

আলেপ বিশ্বাস অভিযোগ করে বলেন, বুধবার বিকেলে আমার ভাতিজা আনোয়ারকে আমি আমার অংশের জমির ওপর যে ঘর রয়েছে তা সরানোর কথা বলতে গেলে তিনি বর্ষা মৌসুমের আগে ঘর সরাতে পারবেননা বলে জানান। আমি তাকে পুনরায় বলতে গেলে আমার উপর চড়াও হয়ে আমাকে বেধড়ক পেটাতে থাকেন আমার দুই ভাতিজা। পরে আমার ছেলে মওদুদ এসে আমাকে রক্ষা করতে এলে তাকেও পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। মওদুদ এখন রাজশাহী সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন বলে জানান। তিনি বলেন আমার মত বয়োবৃদ্ধ আপন চাচাকে সন্ত্রাসী কায়দায় যে অমানবিক ও নিষ্ঠুর নির্যাতন করেছে তার আমি বিচার চাই। তিনি অভিযোগ করে আরও বলেন, আমার ভাতিজারা আমিনুল হাজী এমপির ক্ষমতা দেখিয়ে আমার চিকিৎসা করাতে বাধাগ্রস্ত করে। তিনি আইনগত পদক্ষেপ নিয়েছেন কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন আমার একমাত্র ছেলে মওদুদ সুস্থ হয়ে বাড়ি আসার পর সিদ্ধান্ত নিব।

এ ব্যাপারে আনোয়ারুল ইসলামের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি। অন্যদিকে ভোলাহাট থানার অফিসার ইনচার্জ মাহবুবুর রহমানের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন মিজানুর রহমান মিজুর একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ