মোদির বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ

আপডেট: ডিসেম্বর ১৫, ২০১৬, ১২:০৫ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ আনলেন কংগ্রেসের সহ-সভাপতি রাহুল গান্ধী। এই প্রথম ব্যক্তিগত দুর্নীতির অভিযোগ উঠলো মোদির বিরুদ্ধে। বুধবার সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন কংগ্রেস নেতা।
রাহুল বলেন, ‘ আমার কাছে প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত দুর্নীতির তথ্য রয়েছে। সেই তথ্যই আমরা পার্লামেন্টে তুলে ধরতে চাই। সরকার ভয় পেয়েছে। সেই কারণেই আমাদের বলতে দেয়া হচ্ছে না।’ মোদি ভয়ে পেয়ে পার্লামেন্টে আসছে না দাবি করে কংগ্রেস নেতা বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী ভয় পেয়েছেন। এ কারণেই তিনি লোকসভায় আসছেন না, পালিয়ে বেড়াচ্ছেন।’
বুধবার লোকসভার অধিবেশন শুরুর আগে ১৬টি বিরোধী দলের নেতৃত্ব নিজেদের মধ্যে বৈঠক করে। বিরোধীদের যদি আগে বলতে দেওয়া হয়, তা হলে লোকসভা সচল রাখতে সব রকমের সহযোগিতা করা হবে, এমন সিদ্ধান্ত হয় বৈঠকে। কংগ্রেস সহ-সভাপতি রাহুল গান্ধী লোকসভায় বিরোধীদের তরফে প্রথম বক্তা হবেন বলেও সিদ্ধান্ত হয়। কিন্তু সরকার পক্ষ লোকসভায় আগে বিরোধীদের বলতে দিতে রাজি হয়নি। সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়, বিরোধীরা সরকার পক্ষকে অপদস্থ করার নতুন ছক কষেছেন বলে তারা জানতে পেরেছেন। রাহুল গান্ধীর বক্তব্য শেষ হওয়ার পর নাকি লোকসভা আবার অচল করে দেওয়ার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। তাই রাহুলকে আগে বলতে দেয়া হবে না। আগে সরকার পক্ষ নিজেদের বক্তব্য রাখবেন, তার পর রাহুল ও অন্য বিরোধী নেতাদের বলতে দেওয়া হবে বলে জানানো হয় সরকারি দলের পক্ষ থেকে। এতেই উত্তাল হয়ে ওঠে সংসদ। পরে তৃণমূল, এনসিপিসহ বিভিন্ন বিরোধী দলের নেতাদের সঙ্গে নিয়ে রাহুল যৌথ সংবাদ সম্মেলন করেন।
রাহুল বলেন, ‘গত এক মাস ধরে লোকসভায় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বিতর্কে যেতে চাইছে বিরোধীরা, কিন্তু তিনি কিছুতেই এতে অংশ নিচ্ছেন না। প্রধানমন্ত্রী পপ কনসার্টে গিয়ে কথা বলতে পারছেন, কিন্তু লোকসভায় কিছুতেই মুখ খুলছেন না।’- রাইজিংবিডি