রাজশাহীকে ‘সিল্কি রাজশাহী’ হিসেবে ব্রান্ডিঙে ঐক্যমত

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ৬, ২০১৭, ১২:২০ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক



প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও সুধি সমাজের প্রতিনিধিরা জেলা ব্র্যান্ডিং বিষয়ক প্রস্তুতিমূলক সভা ঐকমত্য হয় যে, রাজশাহী জেলাকে ‘সিল্কি রাজশাহী’ হিসেবে ব্রান্ডিং করা হলে নারীর ক্ষমতায়নসহ টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার চারটি লক্ষ অর্জনে ভূমিকা রাখা সম্ভব হবে।
গতকাল রোববার বিকেলে রাজশাহীর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক কাজী আশরাফ উদ্দীন।
রাজশাহীর ব্র্যান্ডিং নির্ধারণ করতে এ দিন রাজশাহীর প্রশাসন ও সুধিজনদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সের আয়োজন করেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মহাপরিচালক ও এটুআই প্রোগ্রামের প্রকল্প পরিচালক। কিন্তু তিনি রাষ্ট্রীয় অন্য একটি কাজে ব্যস্ত হয়ে পড়ায় ভিডিও কনফারেন্সটি শেষ পর্যন্ত হয়নি।
তবে কনফারেন্সে উপস্থিত স্থানীয় প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও সুধি সমাজের প্রতিনিধিরা জেলা ব্র্যান্ডিং বিষয়ক প্রস্তুতি সভাটি সেরে নিয়েছেন। সেখানে সর্বসম্মতিক্রমে সিদ্ধান্ত হয়- রেশম হবে রাজশাহীর ব্র্যান্ডিং। পরবর্তীতে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে আবারো ভিডিও কনফারেন্সের আয়োজন করা হলে রাজশাহীর এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দেয়া হবে।
সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন, মহানগর আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি শাহীন আক্তার রেনী, রাজশাহী অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইটি) পারভেজ রায়হান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোহাম্মদ সালাহউদ্দীন, রাজশাহী কলেজের অধ্যক্ষ হবিবুর রহমান, দৈনিক সোনালী সংবাদের সম্পাদক ও বাংলাদেশ রেশম শিল্প মালিক সমিতির সভাপতি লিয়াকত আলী, দৈনিক সোনার দেশের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক আকবারুল হাসান মিল্লাত প্রমূখ।
প্রস্তুতি সভায় রাজশাহীর ৯ উপজেলার নির্বাহী অফিসারগণ, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, শিক্ষাবিদ, ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ ও নারী সমাজের প্রতিনিধিসহ সরকারি কর্মকর্তারা অংশ নেন। সভা শেষে ব্রান্ডিং রাজশাহীর নতুন একটি লোগো ‘সিল্কি রাজশাহী’ উন্মোচন করা হয়।