রাজশাহীতে নানা আয়োজনে জাতীয় শোক দিবস পালিত ‘আপন মহিমায় উজ্জ্বল বঙ্গবন্ধু’

আপডেট: আগস্ট ১৫, ২০২২, ১১:৩২ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক :


রাজশাহীতে দিনব্যাপি বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারকে স্মরণ ও তার আত্মার মাগফেরাত কামনায় পালিত হয়েছে জাতীয় শোক দিবস। দিবসটি উদযাপনে সোমবার (১৫ আগস্ট) রাজশাহীর বিভিন্ন রাজনৈতিক-সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন, সরকারি-বেরসকারি-স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠান বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছে। কর্মসূচির মধ্যে ছিলো-বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি ও শহিদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন, বৃক্ষরোপণ, র‌্যালি, আলোচনা সভা, গরিবদের মাঝে খাবার বিতরণ, বিভিন্ন প্রতিযোগিতা ও পুরষ্কার বিতরণীসহ দোয়া মাহফিল।
আলোচনায় বঙ্গবন্ধুকে স্মরণ করে বক্তারা বলেন, জাতির পিতাকে নিয়ে কথা বলতে গেলে নিজেদের অনেক ক্ষুদ্র মনে হয়। এই মহামানবের ৫৫ বছরের জীবনের প্রত্যেক ক্ষেত্রে তার নেতৃত্বের কথা ঘণ্টার পর ঘণ্টা বলা যায়। আপন মহিমায় বাংলার মানুষের কাছে উজ্জ্বল হয়ে রয়েছেন বঙ্গবন্ধু। ঘাতকরা মনে করেছিল বঙ্গবন্ধুকে মারলে তার নাম এ দেশ থেকে নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে। ওরা ভুল ভেবেছিল। বাংলাদেশ যতদিন থাকবে, বঙ্গবন্ধু ততদিন থাকবে।

বক্তারা আরও বলেন, ১৯৭৫ এর ১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যা, কারাগারে জাতীয় চারনেতা হত্যাকা-, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা সবই এক সূত্রে গাঁথা। মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধ্বংস করার জন্যই স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি এই হত্যাযজ্ঞ চালিয়েছে। বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করার পর, তারা বাংলাদেশকে একটি অকার্যকর রাষ্ট্রে পরিণত করতে চেয়েছে। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বে আজ বাংলাদেশে উন্নয়নের মহাসড়কে পদার্পণ করেছে এবং অর্থনীতির প্রতিটি ক্ষেত্রে অভূতপূর্ব সাফল্য অর্জন করেছে। তার হাত ধরেই গড়ে উঠবে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সমৃদ্ধ বাংলাদেশ।

রাজশাহী জেলা প্রশাসন: দিবসটি উদযাপন উপলক্ষে সকালে জেলা শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে ‘বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। রাজশাহী জেলা প্রশাসনের আয়োজনে সভায় বিভাগীয় কমিশনার জি এস এম জাফরউল্লাহ্, এনডিসি প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন।

জেলা প্রশাসক আব্দুল জলিলের সভাপতিত্বে রাজশাহী রেঞ্জের ডিআইজি আব্দুল বাতেন, আরএমপি’র কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক, পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট আব্দুল হাদী আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন। শেষে বিভাগীয় কমিশনার বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন।

এর আগে, সকাল ৯ টায় রাষ্ট্রের পক্ষে বিভাগীয় বিভাগীয় কমিশনার জিএসএম জাফরউল্লাহ্ এনডিসি এর নেতৃত্বে রাজশাহী জেলার বিভিন্ন দফতরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অংশগ্রহণে নগরীর সিআরবি মোড় বঙ্গবন্ধু চত্বরে স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ শেষে একটি শোক র‌্যালি নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে জেলা শিল্পকলা একাডেমীতে এসে শেষ হয়।

উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (রাজস্ব) আবু তাহের মো. মাসুদ রানা, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) মো. জিয়াউল হক, স্থানীয় সরকার পরিচালক মো. এনামুল হক, উপ-পরিচালক (স্থানীয় সরকার) শাহানা আখতার জাহান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মুহাম্মদ শরিফুল হক, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) কল্যাণ চৌধুরী প্রমুখ। বাদ জোহর কালেক্টরেট জামে মসজিদে ১৫ আগস্টে নিহত সকল শহীদের আত্মার মাগফেরাত, দেশ ও জাতির সমৃদ্ধি এবং মঙ্গল কামনা করে বিশেষ দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রাজশাহী কর অঞ্চল: রাজশাহী কর অঞ্চল ও কর আপিল অঞ্চলের আয়োজনে কর ভবনের পদ্মা কনফারেন্স রুমে আয়োজিত সভায় সভাপতিত্ব করেন রাজশাহী কর অঞ্চলের কর কমিশনার মো. নূরুজ্জামান খান।

এর আগে, রাজশাহী কর অঞ্চলের কর কমিশনার মো. নূরুজ্জামান খান ও কর আপীল অঞ্চলের কর কমিশনার মো. শামীমুর রহমানের নেতৃত্বে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি কর ভবন থেকে শুরু হয়ে নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে সিএনবি মোড় বঙ্গবন্ধু চত্বরে গিয়ে শেষ হয়। এরপর সিএনবি মোড়ে অবস্থিত বঙ্গবন্ধু চত্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পমাল্য অর্পণ করা হয়েছে।

আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের শুরুতে উপস্থিত সকল অংশগ্রহণকারী বঙ্গবন্ধুর জীবনের উপর রচিত বিভিন্ন বই ৩০ মিনিট পাঠ করে পঠিতব্য বিষয়ের উপর বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।

পরিশেষে, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে ৭৫-এর ১৫ আগস্টে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুসহ তার পরিবারের নিহত সকল শহিদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করে দোয়া মাহফিল ও মাগফেরাত কামনা করা হয়।
অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী কর আপীল অঞ্চলের কর কমিশনার মো. শামীমুর রহমান, উপ-কর কমিশনার সদর দফতর (প্রশাসন) মুহা. রাশেদুল হাসান প্রমুখ।

রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ: রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের কর্মসূচিগুলো হলো- সূর্যোদয়ের সাথে সাথে জাতীয় ও দলীয় অর্ধনমিতকরণ এবং কালো পতাকা উত্তোলন, কালো ব্যাজ ধারণ, সকাল ১০ টায় কুমারপাড়াস্থ দলীয় কার্যালয়ের স্বাধীনতা চত্বরে বঙ্গবন্ধুসহ জাতীয় চার নেতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। সকাল ১০.৩০ টায় দলীয় কার্যালয় থেকে শোক র‌্যালি বের হয়। শোক র‌্যালিটি নগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে দলীয় কার্যালয়ে এসে শেষ হয়। সকাল ১১টায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ সকল শহিদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দলীয় কার্যালয়ে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল শেষে দলীয় কার্যালয়ে মানবভোজ বিতরণ করা হয়।

সভাপতিত্ব করেন, নগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামাল। বক্তব্য রাখেন, সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার, সহ-সভাপতি শাহীন আকতার রেনী, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জাতীয় পরিষদের সদস্য ও মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর ইকবাল, বীর মুক্তিযোদ্ধা নওশের আলী, যুগ্ম সম্পাদক আহ্সানুল হক পিন্টু, সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাড. আসলাম সরকার প্রমুখ।

সঞ্চালনা করেন, উপ-দপ্তর সম্পাদক পংকজ দে। এছাড়াও নগরীর প্রতিটি ওয়ার্ডে মাইকযোগে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ ও কোরআন তেলাওয়াত প্রচার।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, রাজশাহী মহানগরের সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা, রেজাউল ইসলাম বাবুল, নাঈমুল হুদা রানা, ডা. তবিবুর রহমান শেখ, বদরুজ্জামান খায়ের, যুগ্ম সম্পাদক আসাদুজ্জামান আজাদ, দপ্তর সম্পাদক মাহাবুব-উল-আলম বুলবুল, প্রচার সম্পাদক দিলীফ কুমার ঘোষ প্রমুখ।

জেলা আওয়ামী লীগ: জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যেগে পুঠিয়া উপজেলার বানেশ্বর সরকারি ডিগ্রী কলেজ প্রাঙ্গণে সকাল ৯ টায় বৃক্ষরোপন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রাজশাহী-৫ আসনের সাবেক সাংসদ সদস্য আব্দুল ওয়াদুদ দারা কর্মসূচির উদ্বোধন করেন।

এ সময় উপস্থিন ছিলেন, বানেশ্বর সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ এস.এম একরামুল হক, সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাড. আব্দুস সামাদ, দপ্তর সম্পাদক প্রদ্যুৎ কুমার সরকার প্রমুখ।

রাসিক: রাজশাহী সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে শোক র‌্যালি ও বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়েছে। সোমবার সকাল ১০টায় সিএন্ডবি মোড়ে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে প্রথমে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটনের পক্ষ থেকে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন কাউন্সিলররা।

শ্রদ্ধা নিবেদনকালে রাসিকের প্যানেল মেয়র-১ ও ১২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সরিফুল ইসলাম বাবু, প্যানেল মেয়র-২ ও ১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রজব আলী, প্যানেল মেয়র-৩ তাহেরা খাতুন, রাসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. এ.বি.এম. শরীফ উদ্দিন, ৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর কামরুজ্জামান, ১৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল মোমিন, ১৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আনোয়ার হোসেন, ১৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর তৌহিদুল হক সুমন, ২২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল হামিদ সরকার টেকন, ২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম, ৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর কামাল হোসেন, ৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রুহুল আমিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্যোগে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে শহিদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম প্রশাসনভবনসহ অন্যান্য ভবনে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত ও কালো পতাকা উত্তোলন করা হয়। সকাল ৯:৩০ মিনিটে উপাচার্য অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার শোক র‌্যালিসহ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এসময় উপ-উপাচার্য অধ্যাপক সুলতান-উল-ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক (অব.) মো. অবদায়দুর রহমান প্রামানিক, রেজিস্ট্রার অধ্যাপক মো. আবদুস সালাম, ছাত্র উপদেষ্টা এম তারেক নূর, জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক অধ্যাপক প্রদীপ কুমার পান্ডে, প্রক্টর অধ্যাপক আসাবুল হক, হল প্রাধ্যক্ষ, ইনস্টিটিউট পরিচালক, বিভাগীয় সভাপতিগণসহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন। সেখানে তারা বঙ্গবন্ধুর স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন ও তার রুহের মাগফিরাত কামনা করে মোনাজাত করেন।

পরে বিভিন্ন আবাসিক হল ও বিভাগ, রাবি শিক্ষক সমিতি, ক্যাম্পাসের স্কুলসমূহ, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধে বিশ্বসী প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজ, রাবি বঙ্গবন্ধু পরিষদসহ অন্যান্য প্রতিষ্ঠান এবং পেশাজীবী ও সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।

দিবসটি উপলক্ষে সকাল ১০ টায় শহিদ তাজউদ্দীন আহমদ সিনেট ভবনে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। বিশ^বিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তারের সভাপতিত্বে সভায় ‘বঙ্গবন্ধু ও আধুনিক রাজনীতি’ শীর্ষক বক্তৃতা দেন বিশিষ্ট লেখক ও একুশে পদকপ্রাপ্ত সাংবাদিক স্বদেশ রায়। রেজিস্ট্রার অধ্যাপক আব্দুস সালাম আলোচনায় সঞ্চালনা করেন।

আলোচনায় কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক অবায়দুর রহমান প্রামানিকও বক্তব্য রাখেন। আলোচনা অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে প্রক্টর অধ্যাপক আসাবুল হক, জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক অধ্যাপক প্রদীপ কুমার পান্ডেসহ বিভিন্ন অনুষদ অধিকর্তা, হল প্রাধ্যক্ষ ও বিভাগীয় সভাপতি, বিশিষ্ট শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী ও শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

দিবসটি উপলক্ষে অন্যান্য কর্মসূচির মধ্যে ছিলো- রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় এবং বিশ্ববিদ্যালয় স্কুল ও শেখ রাসেল মডেল স্কুলের শিক্ষার্থীদের জন্য অনলাইনে রচনা প্রতিযোগিতা, বাদ জোহর বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে কোরআনখানি ও মিলাদ মাহফিল, সন্ধ্যা ৬টায় কেন্দ্রীয় মন্দিরে বিশেষ প্রার্থনা এবং সন্ধায় শহিদ মিনার চত্বরে প্রদীপ প্রজ্বালন। সন্ধ্যা ৭টায় শহীদ সুখরঞ্জন সমাদ্দার ছাত্র-শিক্ষক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে কবিতা পাঠ ও আলোচনা।

রুয়েট: রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (রুয়েট) এর উদ্যোগে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে প্রশাসনিক ভবন ও হলসমূহে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা ও শোকের প্রতীক কালো পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে দিনের কর্মসূচি শুরু হয়। এরপর সকাল ১০টায় শোকের প্রতীক কালোব্যাজ ধারণ করা হয়।

সকাল সাড়ে ১০টায় রুয়েট ভাইস-চ্যান্সেলর (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. মো. সাজ্জাদ হোসেন এর নেতৃত্বে রুয়েট প্রশাসনের পক্ষ থেকে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ম্যুরালে পুষ্পার্ঘ অর্পণ ও শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করা হয়। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে সদ্য সাবেক ভাইস-চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মো. রফিকুল ইসলাম সেখ, রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক ড. মো. সেলিম হোসেন, রুয়েট শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. ফারুক হোসেন, ছাত্রকল্যাণ পরিচালক ও সাধারণ সম্পাদক শিক্ষক সমিতি অধ্যাপক ড. মো. রবিউল আওয়াল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

রুয়েট প্রশাসনের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদনের পরপর পৃথক পৃথকভাবে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেন- রুয়েট শিক্ষক সমিতি, ছাত্রলীগ রুয়েট শাখা, কর্মকর্তা সমিতি, কর্মচারী সমিতি, বঙ্গবন্ধু কর্মকর্তা পরিষদ, মুজিব আদর্শে বিশ্বাসী ছাত্র-শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারী রুয়েট, মাস্টারোল কর্মচারী সমিতি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল, দেশরতœ শেখ হাসিনা হল, শহীদ লেফটেন্যান্ট সেলিম হল, জিয়াউর রহমান হল, শহিদ আব্দুল হামিদ হল, শহীদ শহিদুল ইসলাম হল, টিনসেড হল, সাধারণ কর্মচারী রুয়েট। সকাল ১১ টায় বৃক্ষরোপন করেন, ভাইস-চ্যান্সেলর (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. মো. সাজ্জাদ হোসেন। বাদ জোহর রুয়েট কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে বিশেষ মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।

রামেবি: রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (রামেবি) এর উদ্যোগে কনফারেন্স রুমে সকালে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সূর্যোদয়ের সাথে সাথে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত ও কালো পতাকা উত্তোলন, সকাল সাড়ে ৮টায় জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ এবং মোনাজাত করা হয়। সভায় মূখ্য আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. আব্দুল মান্নান। বক্তব্য রাখেন, রামেবির কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর ড. রুস্তম আলী আহমেদ, রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ডা. আনোয়ারুল কাদের, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক ডা. আনোয়ার হাবিব, কলেজ পরিদর্শক অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন, সহকারী-রেজিস্ট্রার(চ.দা) রাসেদুল ইসলাম ।

এ সময় রামেবি’র উপাচার্য একান্ত সচিব (ভারপ্রাপ্ত) মো. ইসমাঈল হোসেন, উপ- রেজিস্ট্রার ডা. আমিন আহমেদ খান, উপ-পরিচালক (অ.হি) মো. আখতার হোসেন, পরিচালক (প.উ.) প্রকৌশলী সিরাজুম মুনীর প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ রেশম উন্নয়ন বোর্ড: জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখার মাধ্যমে জাতীয় শোক দিবসে গৃহীত কর্মসূচির সূচনা করা হয়। উপস্থিত সকলকে কালো ব্যাচ পড়ানো হয়। সকাল ১০ টায় বাংলাদেশ রেশম উন্নয়ন বোর্ডের মহাপরিচালক শ্যাম কিশোর রায় এর নেতৃত্বে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, বঙ্গমাতাসহ পরিবারের সকল শহিদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া করা হয়। এরপর বোর্ড প্রধান কার্যালয় চত্ত্বরে বৃক্ষরোপণ করা হয়। তারপর আলোচনা ও শোক সভা অনুষ্ঠিত হয়। রেশম গবেষণা ও প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউট, রাজশাহীর জামে মসজিদে দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়।

আলোচনা ও শোক সভায় ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট নির্মম হত্যাকান্ডের তীব্র নিন্দা জানানো হয়। শোক সভায় বাংলাদেশ রেশম উন্নয়ন বোর্ডের পরিচালক (অর্থ ও পরিকল্পনা) ড: এম. এ মান্নান, পরিচালক(প্রশাসন) সৈয়দ মোস্তাক হাসান, পরিচালক (উৎপাদন ও বিপণন) নাছিমা খাতুন, পরিচালক (সম্প্রসারণ) মোহাম্মদ এমদাদুল বারী প্রমুখ।

বিএমডিএ: বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিএমডিএ) এর উদ্যোগে প্রধান কার্যালয় রাজশাহী বরেন্দ্র ভবনে ও সকল জোন ও রিজন অফিসে যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করা হয় দিবসটি। এছাড়া এদিন বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ, প্রধান কার্যালয়সহ আওতাধীন স্ব-স্ব দপ্তরে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করন করা হয়।

বিএমডিএ নির্বাহী পরিচালক আবদুল রশিদ এর নেতৃত্বে দিবসের কর্মসূচিতে রাজশাহী নগরীর সিএনবি মোড়ে অবস্থিত বঙ্গবন্ধু চত্বরে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালএ পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। পরে বিএমডিএ সম্মেলন কক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল। বঙ্গবন্ধুর স্মৃতির উপর ভিডিও স্লাইড প্রদর্শন করা হয়।

এসময় উপস্থিতি ছিলেন- বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিএমডিএ) নির্বাহী পরিচালক আব্দুর রশীদ, অতি: প্রধান প্রকৌশলী মো. শামসুল হোদা, অতি: প্রধান প্রকৌশলী ড. মো. আবুল কাসেম, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মো. শরীফুল হক, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মো আব্দুল লতিফ, বিএমডিএ সচিব শরিফ আহম্মেদ, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী এ.টি.এম মাহফুজুর রহমান, নির্বাহী প্রকৌশলী শিবির আহমেদ, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী শহিদুর রহমান, নির্বাহী প্রকৌশলী সুমন্ত কুমার বসাক, নির্বাহী প্রকৌশলী মো. সমসের আলী প্রমুখ।

রাজশাহী মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বোর্ড: দিবসটি উপলক্ষে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত ও কালো পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে শুরু হয় শোক দিবসের কর্মসূচি। সকাল ৭.৩০ টায় শাহ্ মখদুম দরগাহ্ হেফজ মাদ্রাসায় কোরানখানি অনুষ্ঠিত হয়।

সকাল ১০ টায় রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড চত্বরে “মুজিব শতবর্ষ-১০০” স্মারক বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলী নিবেদন ও ১৯৭৫ এর ১৫ আগস্টে শাহাদতবরণকারী বঙ্গমাতাসহ তার পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলী নিবেদন এবং শহিদদের সম্মানার্থে ১ মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের সকল স্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের উপস্থিতিতে সকাল ১০.৩০ টায় রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর হাবিবুর রহমান এর সভাপতিত্বে “বঙ্গবন্ধু হত্যাকান্ড- ১৯৭৫ পরবর্তী রাজনীতি ধারা” শীর্ষক এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বোর্ডের প্রাক্তন চেয়ারম্যান বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ্ প্রফেসর মো: নুরল আলম। প্রধান আলোচক হিসেবে আলোচনা করেন বিশিষ্ট ইতিহাসবিদ প্রফেসর চিত্ত রঞ্জন মিশ্র।

এরপর দুপুর ১.৩০ টায় বর্ণালী মোড়ে অবস্থিত ছোট মনি নিবাস, শাহ্ মখদুম দরগা মাদ্রাসা, দরগাপাড়া, রাজশাহীতে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মাঝে পোশাক ও দুপুরের খাবার বিতরণসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালিত হয়। বাদ আসর রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড মসজিদে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ শাহাদত বরণকারী শহিদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া ও তবারক বিতরণ করা হয়।
আলোচনা সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন, বোর্ডের পরিক্ষা নিয়ন্ত্রক আরিফুল ইসলাম। সভা পরিচালনা করেন রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের প্রধান মূল্যায়ন অফিসার (চলতি দায়িত্ব) এস.এম. গোলাম আজম।

নগর ছাত্রলীগ: রাজশাহী মহানগর ছাত্রলীগের উদ্যোগে সকাল ৯ টায় নগরীর সিএন্ডবির মোড়ে সভাপতি নূর মোহাম্মদ সিয়াম ও সাধারণ সম্পাদক ডা. সিরাজুম মুবিন সবুজের নেতৃত্বে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করা হয়। পরে রাজশাহী নিউ গভঃ ডিগ্রি কলেজ অডিটোরিয়ামে বেলা ১১ টায় আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয় ।

সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য ও রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ডা. আনিকা ফারিহা জামান অর্ণা । বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী নিউ গভঃ ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর কালাচাঁদ শীল। দুপুর ১ টায় কলেজ প্রাঙ্গণে বৃক্ষরোপণ করা হয় । শেষে পথচারীদের মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়।

সোনালী ব্যাংক: দিবসটি উপলক্ষে সোনালী ব্যাংক লিমিটেড, জেনারেল ম্যনেজার’স অফিস রাজশাহী এর পক্ষ থেকে জাতির পিতার প্রতি গভীর শ্রদ্ধাজ্ঞাপনসহ বঙ্গবন্ধু চত্বর, সিএন্ডবি মোড়, রাজশাহীতে অবস্থিত বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পন করা হয়। বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পনের সময় উপস্থিত ছিলেন, জেনারেল ম্যানেজার মীর হাসান জাহিদ, ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার সৈয়দ মোঃ তৌহিদুল হক, ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার শাহাদত হোসেনসহ সোনালী ব্যাংকের বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ সোনালী ব্যাংক লিমিটেড রাজশাহী অঞ্চলের সর্বস্তরের কর্মকর্তা/কর্মচারীবৃন্দ।

পুষ্পস্তবক অর্পন শেষে সোনালী ব্যাংক লিমিটেড জিএম অফিস রাজশাহী ভবন চত্বরে দোয়া মাহফিল, বৃক্ষ রোপন ও স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচির আয়োজন করা হয়।

রাজশাহী ব্যাংকার্স ক্লাব : ব্যাংকার্স ক্লাব রাজশাহীর উদ্যোগে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করা হয়। সকালে নগরীর সিএনবি মোড়ে অবস্থিত বঙ্গবন্ধু চত্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ব্যাংকার্স ক্লাব রাজশাহীর সভাপতি ও বাংলাদেশ ব্যাংক রাজশাহীর নির্বাহী পরিচালক জীবন কৃষ্ণ রায়ের নেতৃত্বে পুস্পমাল্য অর্পণ করেন ব্যাংকার্স ক্লাবের সদস্যরা। এরআগে একটি শোক র‌্যালি নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে বঙ্গবন্ধু চত্বরে এসে শেষ হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিচালক মুজিবুর রহমান ও নাইমুল কবির, ব্যাংকার্স ক্লাব রাজশাহীর সাধারণ সম্পাদক ও ওয়ান ব্যাংকের ভিপি ব্রাঞ্চ ম্যানেজার রাজশাহীর আব্দুল মান্নান, অগ্রণী ব্যাংকের জিএম শামীম আহম্মেদ, জনতা ব্যাংকের জিএম তাপস কুমার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অগ্রণী ব্যাংকের ডিজিএম মোস্তফা-ই-কাদির অর্থ সম্পাদক বাংলাদেশ ব্যাংকের যুগ্ম-পরিচালক আবুল কালাম আজাদ, দপ্তর সম্পাদক জাইদুল হাসান রাকা সহ ব্যাংকার্স ক্লাব রাজশাহীর কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যবৃন্দ।

রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক : দিবসে রাকাব প্রধান কার্যালয়ে সকাল ৯:১৫টায় বঙ্গবন্ধুর ম্যূরালে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আব্দুল মান্নান। এ সময় ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন নির্বাহীসহ প্রধান কার্যালয়, বিভাগীয় কার্যালয়, বিভাগীয় নিরীক্ষা কার্যালয়, প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট, এসইসিপি, রাজশাহী ও স্থানীয় মুখ্য কার্যালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং জোনাল ব্যবস্থাপক ও জোনাল নিরীক্ষা কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

পরে ব্যাংক চত্বরে একটি ফলজ বৃক্ষ রোপনের মাধ্যমে ‘জাতীয় বৃক্ষরোপণ অভিযান ২০২২’ এর আগস্ট মাস ব্যাপি বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি উদ্বোধন করেন। এর পূর্বে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে যথাযথ মর্যাদায় জাতীয় পতাকা উত্তোলন (অর্ধনমিত) এর মাধ্যমে শোক দিবসের কর্মসূচি শুরু করা হয়। এরপর সকাল ৯ টায় পবিত্র কোরআন খতমের আয়োজন করা হয়। সকাল ১১ টায় রাকাব পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান রইছউল আলম মন্ডল এর ভার্চুয়ালি অংশগ্রহণে আলোচনা সভার অনুষ্ঠিত হয়। শেষে বিশেষ দোয়া করা হয়।

রাজশাহী চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি : দিবস উপলক্ষে রাজশাহী চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি’র উদ্যোগে দিনব্যাপি কোরআন খতম, দোয়া মাহফিল এবং দরিদ্র ও অসহায়দের মাঝে খাবার বিতরণের আয়োজন করা হয়। দুপুর ১.৪৫ মিনিটে দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া মাহফিল শেষে দরিদ্র ও অসহায়দের মাঝে দুপুরের খাবার বিতরণ করা হয়। এ সময় উপস্থিত থেকে খাবার বিতরণ করেন, রাজশাহী চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রির সভাপতি মাসুদুর রহমান রিংকু। উপস্থিত ছিলেন, সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুল আওয়াল খান চৌধুরী, সহ-সভাপতি সুলতান মাহমুদ সুমন প্রমুখ।

রাজশাহী কলেজ : শোক দিবস উপলক্ষে সকালে পতাকা অর্ধনমিত রাখা ও কালো ব্যাচ ধারণ করা হয়। দিনব্যাপি আয়োজনে শোক র‌্যালি, পুষ্পস্তবক অর্পণ, আলোচনা সভা, কুইজ প্রতিযোগীতা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এসব আয়োজনে সভাপতিত্ব করেন, রাজশাহী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আব্দুল খালেক। অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, প্রাক্তন অধ্যক্ষ প্রফেসর হবিবুর রহমান, উপাধ্যক্ষ ওলিউল রহমান প্রমুখ।

 

বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়: উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. আশিক মোসাদ্দিক এর নেতৃত্বে সূর্যোদয়ের সাথে জাতীয় পতাকা অর্ধ-নমিত রাখা হয়। এরপর সকাল ১০ টায় কাজলা ভবনের সেমিনার কক্ষে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শহিদ সদস্যদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করা হয়।

পরে আলোচনা, কুইজ প্রতিযোগিতা ও ‘মুজিব আমার পিতা’-অ্যানিমেশন ফিল্ম পরিবেশনের আয়োজন করা হয়। সমাজ বিজ্ঞানের প্রভাষক ড. নিবেদিতা রায়-এর সঞ্চালনায় আলোচনায় অংশ নেন উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. আশিক মোসাদ্দিক, বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর ড. ফয়জার রহমান, সাংবাদিকতা বিভাগের কো-অর্ডিনেটর জনাব শাতিল সিরাজ ও ইংরেজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক আবু জাফর মো. সাদী। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার সুরঞ্জিত মন্ডল, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের প্রধান ও বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. হাবিবুল্লাহ প্রমুখ।

 

সরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজ: সরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজের উদ্যোগে শোক র‌্যালি, পুষ্পস্তবক অর্পন, কবিতা, হামদ-নাত ও রচনা প্রতিযোগীতা, শেখ রাসেল দেয়ালিকা, আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।

 

মেট্রোপলিটন কলেজ : দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা, কুইজ প্রতিযোগিতা ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। কলেজ মিলনায়তনে অধ্যক্ষ সাইফুল রহমানের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, সহকারী অধ্যাপক বিধান চন্দ্র সরকার প্রমুখ।

মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড: সংসদের রাজশাহী মহানগর ও জেলা ইউনিটের সাথে শোক র‌্যালি শেষে সিএনবি মোড়ে বঙ্গবন্ধু প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয় এবং রাজশাহী জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমপ্লেক্সে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ মহানগর কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা ডা. আব্দুল মান্নান, রাজশাহী জেলা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহাবুল মাস্টার, বীর মুক্তিযোদ্ধা সাবেক প্রতিমন্ত্রী জিনাতুন নেসা তালুকদার, বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রফেসর রুহুল আমিন প্রামানিক, সাবেক ডেপুটি কমান্ডার রবিউল ইসলাম, সাবেক ডেপুটি কমান্ডার এ,কে,এম ইয়াসিন আলী মোল্লা, বাসদ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মুস্তাফিজুর রহমান, সেক্টর কমান্ডার ফোরাম সভাপতি হাসান খন্দকার প্রমুখ।

বিএনএফ: লেডিস অর্গানাইজেশন ফর সোসাল ওয়েলফেয়ার (লফস) এর ব্যবস্থপনায় নগরীর সিএনবির মোড় বঙ্গবন্ধু চত্বরে অবস্থিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে বিনম্র শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করা হয়। রাজশাহী সহযোগী সংস্থা লফস এর নির্বাহী পরিচালক ও বিএনএফ এর সাবেক নির্বাহী কমিটির সদস্য শাহানাজ পারভীনসহ বিএনএফ রাজশাহী জেলার সহযোগী সংস্থা নিকুঞ্জ বস্তি উন্নয়ন সংস্থার নির্বাহী পরিচালক মো. জাকির হোসেন, পরিচালক (অর্থ) তৈফিকুর রহমান, প্রতিবন্ধি সেচ্ছাসেবী সোসাইটি এর নির্বাহী পরিচালক মো. আলী আকবর, আরএসডিপি এর নির্বাহী পরিচালক মো. জাহাঙ্গীর সেলিম, কাকন বহুমূখী উন্নয়ন সংস্থা এর নির্বাহী পরিচালক মধূসূধন মৈত্র, লক্ষীপুর দুস্থ মহিলা শিল্প সংস্থার সভানেত্রী মিসেস সুফিয়া ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মহিলা পরিষদ: দিবস উপলক্ষে সকাল ৮ টায় বঙ্গবন্ধু চত্বর আলুপট্টি মোড় থেকে একটি শোক র‌্যালি বের করে কুমারপাড়া আওয়ামী লীগ পার্টি অফিস মোড়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবিতে মাল্যদান ও পুস্পস্তবক অর্পণ করা হয়। সেখানে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। এই কর্মসূচিতে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের সভাপতি ও কেন্দ্রীয় কমিটির সহ সভাপতি কল্পনা রায়, সাধারণ সম্পাদক অঞ্জনা সরকার ও জেলার অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

 

শাহ্ মখদুম মেডিকেল কলেজ: শাহ্ মখদুম মেডিকেল কলেজ কমপ্লেক্স লেকচার গ্যালারিতে আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনায় কলেজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মনিরুজামান স্বাধীন এর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, হসপিটালের উপ-পরিচালক ডা. মজিবুর রহমান, সহকারী পরিচালক ডা. মোজাম্মেল হক বেলাল, ডা. তাওহীদা ইয়াসমিন ও ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ও শাহ্ মখদুম নার্সিং কলেজের অধ্যক্ষ মনোয়ারা খাতুন। দোয়া পরিচালনা করেন, মাওলানা মতিউর রহমান।

 

রুয়েট কর্মকর্তা সমিতি: রুয়েট কর্মকর্তা সমিতি সকাল ১১:১০ মিনিটে কর্মকর্তা সমিতির সভাপতি নাজিমউদ্দীন আহম্মদ ও সাধারণ সম্পাদক দিলীপ কুমার ঘোষ রুয়েটের ভাইস-চ্যান্সেলর (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. মো. সাজ্জাদ হোসেন ও রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক ড. মো. সেলিম হোসেনকে সাথে নিয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর ম্যুরালে পুষ্পার্ঘ অর্পণ ও শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেন। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে কর্মকর্তা সমিতির সহ-সভাপতি রোকনুজ্জামান রোকন, সহ-সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী হারুন অর রশিদ, সাংগঠনিক সম্পাদক প্রকৌশলী নাসির উদ্দীন শাহ্, দপ্তর সম্পাদক প্রকৌশলী রাইসুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

 

রাজশাহী সরকারি মহিলা কলেজ: দিবস উপলক্ষে সকাল ৮:৪৫ টায় কলেজের সকল শিক্ষক এবং কর্মচারি কালোব্যাজ ধারণ করেন। সকাল ৯ টায় কলেজ চত্বরে শোক র‌্যালি এবং ৯:৩০ টায় কলেজ চত্বরে স্থাপিত জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ শেষে ১ মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এরপর আলোচনা সভা শুরু হয়। এই আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন, অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. জুবাইদা আয়েশা সিদ্দীকা। সার্বিক সমন্বয়ক হিসেবে ছিলেন কলেজের উপাধ্যক্ষ প্রফেসর ড. নাজনীন সুলতানা। শেষে দোয়া মাহফিল করা হয়। বঙ্গবন্ধুর জীবনী নিয়ে নির্মিত “মুজিব আমার প্রেরণা” নামক ডকুমেন্টারি প্রদর্শিত হয়।

 

মাদার বখ্শ্ গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজ: দিসবটি উপলক্ষে আলোচনা সভা ও রচনা প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরনের আয়োজন করা হয়। আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন, কলেজের অধ্যক্ষ সালমা শাহাদাত। আলোচনা ও দোয়া অনুষ্ঠানে কলেজের শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

 

মহিষবাথান আদর্শ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়: সকাল ৭.৫০মিনিটে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পন করেন, প্রধান শিক্ষক মাহাবুব-উল-আলম, সহকারী প্রধান শিক্ষক আলী হায়দার প্রমুখ। শোক র‌্যালি করা হয়। শেষে কবিতা আবৃত্তি, আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

 

নওগাঁ: দিনব্যাপি আয়োজনে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে সকাল ৯টায় সদর উপজেলা পরিষদ চত্বরে বঙ্গবন্ধুর অস্থায়ী বেদীতে ফুল দিয়ে পুষ্পস্তবক অর্পন করেন সদর আসনের সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার নিজাম উদ্দিন জলিল জন, জেলা প্রশাসক খালিদ মেহেদী হাসান। এছাড়াও জেলা পুলিশ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, সরকারি ও বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান, বিভিন্ন সামাজিক ও সংস্কৃতিক সংগঠন এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকেও পুষ্পস্তবক অর্পন করা হয়। পরে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সদর উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে আলোচনা সভা ও যুব ঋণের চেক বিতরণের আয়োজন করা হয়। জেলা প্রশাসক খালিদ মেহেদী হাসানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন নওগাঁ-৫ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য ব্যারিষ্টার নিজাম উদ্দিন জলিল জন।

ওয়াসা: রাজশাহী পানি সরবরাহ ও পয়ঃনিষ্কাশন কর্তৃপক্ষ (ওয়াসা) উদ্যোগে স্বাধীনতার স্থপতি, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাত বার্ষিকী এবং জাতীয় শোক দিবসে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করা হয়েছে। সোমবার (১৫ আগস্ট) সকালে নগরীর সিএনবি মোড়ে অবস্থিত বঙ্গবন্ধু চত্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে রাজশাহী ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. জাকীর হোসেন নেতৃত্বে পুস্পমাল্য অর্পণ করেন বিনম্র শ্রদ্ধা জানান ওয়াসার উর্দ্ধতন কর্মকর্তাবৃন্দ।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, ওয়াসার উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. তুহিনুর আলম, প্রধান প্রকৌশলী মো. পারভেজ মাহমুদ, সচিব মোহাম্মদ আব্দুল হালিম টলষ্টয়, নির্বাহী প্রকৌশলী মো. রেজাউল হুদা, মো. ইকবাল হোসেন, মো. সোহেল রানা, মো. মাহাবুবুর রহমান সহ রাজশাহী ওয়াসার অন্যান্য কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণ।

 

মুক্তিযোদ্ধা সংসদ রাজশাহী জেলা ও মহানগর কমান্ড: দিবসটি উপলক্ষে পুষ্পস্তবক অর্পন, আলোচনা সভা ও দোয়া করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন, সাবেক প্রতিমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা জিনাত নেছা তালুকদার, সাবেক ডেপুটি কমান্ডার মোহাম্মাদ আলী কামাল, জেলা সাবেক ডেপুটি কমান্ডার ইয়াসিন আলী মোল্লা, সহকারী কমান্ডার শেখ দিল মোহাম্মদ প্রমুখ।

নর্থ বেঙ্গল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি: দিবসটি উপলক্ষে নগরীর চৌদ্দপাইস্থ ইউনিভার্সিটির নিজস্ব ক্যম্পাসে কালো পতাকা উত্তোলন ও জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখার মাধ্যমে কর্মসূচি শুরু হয়। সকাল সাড়ে ১০টায় বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়। এরপর আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, ইউনিভার্সিটির ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান বরেণ্য কথাশিল্পী নারীনেত্রী অধ্যাপিকা রাশেদা খালেক। মূখ্য আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান, ইউনিভার্সিটির উপাচার্য বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, গবেষক ও কলামিস্ট প্রফেসর ড. আবদুল খালেকের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, ইউনিভার্সিটির চীফ-কোঅর্ডিনেটর প্রফেসর ড. পি.এম. সফিকুল ইসলাম। দোয়া পরিচালনা করেন ইউনিভার্সিটির প্রক্টর ড. আজিবার রহমান। অনুষ্ঠানে ইউনিভার্সিটির রেজিস্ট্রার, উর্ধ্বতন কর্মকর্তা, শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

বারিন্দ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল লি: দিবস উপলক্ষে জাতীয় পতাকা (অর্ধনমিত) ও কালো পতাকা উত্তোলন, পুস্পস্তবক অর্পণ, দোয়া মাহ্ফিল, আলোচনা সভা এবং রোগীদের উন্নতমানের খাবার বিতরণ করা হয়। কর্মসূচিতে প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক, কলেজের প্রিন্সিপাল, ডাইরেক্টর, প্রফেসর, ডাক্তার, ছাত্র-ছাত্রীসহ সর্বস্তরের কর্মকর্তা, কর্মচারী এবং নার্সিং কলেজের প্রিন্সিপালসহ সকল ছাত্র-ছাত্রী, কর্মকর্তা, কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

বিসিক: দিবসটি উপলক্ষ্যে দুপুর ২ টায় বিসিক শিল্পনগরী রাজশাহী জেলা কার্যালয়ের আয়োজনে এবং বিসিক শিল্পনগরী শিল্প মালিক সমিতির সহযোগিতায় দোয়া মাহফিল ও দুস্থদের মাঝে খাবার বিতরনের আয়োজন করা হয়। শোকসভা ও দোয়া মাহফিলের প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বিশিষ্ট সমাজসেবী শাহীন আকতার রেনী।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বিসিক রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের আঞ্চলিক পরিচালক জাফর বায়েজীদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বিসিক শিল্পনগরীর শিল্প মালিক সমিতির সভাপতি লিয়াকত আলী। দোয়া মাহফিল ও দুস্থদের মাঝে খাবার বিতরণ অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন, বিসিক শিল্পনগরী কর্মকর্তা আনোয়ারুল আজিম।

এছাড়াও মাসব্যাপি কর্মসূচির অংশ হিসেবে বিসিক শিল্প নগরী সপুরা রাজশাহী ও বিসিক শিল্প নগরী ২ রাজশাহীতে প্রায় ১১ শো গাছের চারা রোপন কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। অনুষ্ঠানে বিসিক আঞ্চলিক কার্যালয়, বিসিক জেলা কার্যালয়, বিসিক শিল্পনগরী কার্যালয় এর কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ বিসিক শিল্প ইউনিট এর বিভিন্ন শিল্প মালিক-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

শাপলা: বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা শাপলা গ্রাম উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে কর্মসূচির শুরুতে সংস্থার নির্বাহী পরিচালক মোহসিন আলীর নেতৃত্বে সংস্থার পক্ষে রাজশাহী কলেজ প্রাঙ্গণে এবং রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের প্রধান কার্যালয় প্রাঙ্গণে অবস্থিত বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করা হয়। পরে দোয়া ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, শাপলা গ্রাম উন্নয়ন সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা ও নির্বাহী পরিচালক মোহসিন আলী। উপস্থিত ছিলেন সহকারী পরিচালক আজহারুল ইসলাম, সমন্বয়কারী মাহবুব হোসেন প্রমুখ। শেষে একটি বাচিকাভিনয় উপস্থাপিত হয়।

 

হিন্দু কল্যাণ ট্রাস্ট: হিন্দু কল্যাণ ট্রাস্টের বিশেষ প্রার্থনা ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সকালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন, পবিত্র গীতা পাঠ, শহিদ সকলের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেড: দিবসটি উপলক্ষে লক্ষ্মীপুর শাখা থেকে একটি শোক র‌্যালি বের করে সিঅ্যান্ডবি মোড়ে গিয়ে বঙ্গবন্ধুর মুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। এরপর অগ্রণী ব্যাংক ট্রেনিং ইনস্টিটিউটে একটি আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এ ছাড়া শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা এবং রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির তত্বাবধানে রক্তদান কর্মসূচির আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, রাজশাহী সার্কেলের মহাব্যবস্থাপক শাম্মি উদ্দিন আহমেদ। প্রধান আলোচক ছিলেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের প্রফেসর ড. দুলাল চন্দ্র বিশ্বাস। বিশেষ অতিথি ছিলেন ব্যাংকের রাজশাহী অঞ্চলের অঞ্চল প্রধান ও উপ-মহাব্যবস্থাপক এসএম মোস্তফা-ই-কাদের, সাহেব বাজার কর্পোরেট শাখার প্রধান ও উপ-মহাব্যবস্থাপক আব্দুল মান্নান, সার্কেল সচিবালয়ের সহকারী মহাব্যবস্থাপক লোকমান হাকিম, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় কর্পোরেট শাখার প্রধান বজলুর রশীদ প্রমুখ। সভাপতিত্ব করেন, রাজশাহী সার্কেলের উপ-মহাব্যবস্থাপক জবাবলু মুহরী।

 

মাসুদ: দিবস আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের পক্ষ থেকে খাবার বিতরণ করে সাবেক ছাত্রনেতা অ্যাডভোকেট আবু রায়হান মাসুদ। ব্যবসায়ী ও আওয়ামী লীগ নেতা আনোয়ার হোসেনের উদ্যোগে নগরীর হড়গ্রাম ও কোর্ট স্টেশন এলাকায় চারটি স্থানে তিন হাজার মানুষের মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়।