শহীদ জামিল আকতার রতনের শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে স্মরণসভা জামাত-শিবিরের রাজনীতি নিষিদ্ধের দাবি ৮০’র দশকের ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের

আপডেট: মে ৩১, ২০২২, ১০:২৬ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:


শহীদ জামিল আকতার রতনের ৩৪ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে স্মরণসভা করেছে রাজশাহীর ৮০’র দশকের ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ। মঙ্গলবার (৩১ মে) বিকেল ৪ টায় নগরীর লক্ষীপুর মোড়ে এই স্মরণ সভার আয়োজন করা হয়।

৮০’র দশকের ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের ছাত্রনেতা ও রাকসুর সাবেক ভিপি রাগীব আহসান মুন্নার সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন, সাবেক ছাত্রনেতা ও রাজশাহী জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোহা. আসাদুজ্জামান আসাদ, সাবেক ছাত্রনেতা হাবিবুর রহমান বাবু, কামরান হাফিজ ইয়ামিন, রাজশাহী কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক জিএস আব্দুল্লা আল মাসুদ শিবলী, সাবেক ছাত্রনেতা শাহরিয়ার রহমান সন্দেশ, মেরাজুল আলম, রাজশাহী জেলা যুবলীগের সভাপতি আবু সালেহ্, সাবেক ছাত্রনেতা এ্যাড. আবু রায়হান মাসুদ, আমিরুল, রায়হান উদ্দিন হালিম, তামিম সিরাজী প্রমুখ।

এছাড়াও সভায় উপস্থিত ছিলেন সাবেক ছাত্রনেতা ফজলে রাব্বী বাদশা, সজীব, নাসির উদ্দিন রুবেল, ছাত্রনেতা ইব্রাহীম, রুহি, সাগরসহ আরো অনেকে। সভা সঞ্চালনা করেন রাজশাহী মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি শফিকুজ্জামান শফিক।

স্মরণসভায় বক্তারা বলেন, শহীদ জামিল আকতার রতন ছিলেন গণতন্ত্রমনা ও অসাম্প্রদায়িক মানুষ। এসময় জামাত-শিবিরের রাজনীতি যথাসম্ভব দ্রুততার সাথে নিষিদ্ধ করার জন্য সরকারের নিকট জোর দাবি জানানো হয়। বক্তারা আরো বলেন, এখনই জামাত-শিবিরের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ গড়ে তুলতে না পারলে ভবিষ্যতে ভয়াবহ পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হবে।

মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও অসাম্প্রদায়িকতা বাস্তবায়িত না হলে সুখী-সমৃদ্ধ ও শান্তিময় বাংলাদেশ বিনির্মাণ সম্ভব হবে না। সভা থেকে যুদ্ধাপরাধী জামাতের শীর্ষ নেতাদের ফাঁসির রায় কার্যকর ও নির্বাচনে জামাতের দলীয় প্রতীক বাতিল করার জন্য প্রধানমন্ত্রী ও জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করা হয়। এর আগে সকালে শহীদ জামিল আকতার রতনের সমাধীতে ফুলেল শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে এক মিনিট নিরবতা পালন করেন ৮০’র দশকের ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের নেতৃবৃন্দ।