আপডেট: মার্চ ১১, ২০১৭, ১২:২৫ পূর্বাহ্ণ

রম্যশিল্পী ও কার্টুনিস্ট হিসেবে বেশ পরিচিত সোহানুর রহমান অনন্ত। তাঁর জন্ম ১৮ ফেব্রুয়ারি চাঁদপুরে। যিনি মানুষের হৃদয় ভার দূর করতে, হাসির রাজ্যে নিয়ে যেতে নিরলস ভাবে রম্য লিখে যাচ্ছেন অবিরত। ২০১৬ সালের বই মেলায় তাঁর নীল ক্যাফের ভালোবাসা এবং ২০১৭ সালে অমর একুশে বইমেলায় তোমার জন্য এক আকাশ গল্প প্রকাশিত হয়েছে। বর্তমানে তিনি প্রথম সারির একটি জাতীয় দৈনিক যুগান্তরে কর্মরত আছেন। ছড়ায় ছড়ায় তাঁর সাক্ষাৎকার নিয়েছে তরুণ ছড়াকার মেহেদী হাসান হিমেল।


হিমেল:
কেমন আছেন মুচকি হেসে
একটু আমায় বলেন,
ছড়ায় ছড়ায় সাক্ষাৎ নিব
তৈরি আপনি? চলেন…
অনন্ত:
ভালো আছি চিকন চিকন
দুঃখে থাকি কম,
সাক্ষাৎকারটা নেওয়ার আগে
নিতে দেন দম।
হিমেল:
ফেসবুকেতে ছড়ান আলো কত কিছু লেখেন,
সেখান থেকে অল্প স্বল্প কিছু কি আর শেখেন?
অনন্ত:
লিখি তো ভাই অনেক কিছু, আরো আছে শেখার
ফেসবুকে তাই ভাগ করে দেই যা যা থাকে লেখার।
মজার মজার স্ট্যাটাস পেয়ে আমায় ভালোবাসুক,
পত্রিকাতে রম্য পড়ে সবাই প্রাণখুলে হাসুক।
হিমেল:
হাতে খড়ি কড়া করি কেমন ভাবনা এঁকে?
প্রথম লেখা ছাপা হল কোন পত্রিকা থেকে?
অনন্ত:
মফস্বলের ছেলে আমি তাইতো প্রথম লেখা
জেলার পত্রিকার পাতায় পেয়েছিলাম দেখা।
আঁকাআকি পেশা এখন ভাবি যে তা নিয়ে
ভাবনাগুলো ফুটিয়ে তুলি রং তুলি দিয়ে।
ফাঁকে ফাঁকে লেখি আবার আইডিয়া আর গল্প
এভাবেই চলছে বেশ নয়তো কিছু অল্প।
হিমেল:
কোথায় আপনার বেড়ে ওঠা? কোথায় লেখাপড়া?
কোন বিষয়টির জন্য আপনার জীবন সুখে ভরা?
অনন্ত:
বেড়ে ওঠা চাঁদপুরেতে লেখাপড়া ঢাকায়
জীবনটাতে সুখ এনে দেয় লেখা এবং আঁকায়।
ভালোলাগে আড্ডাবাজি হাসাতে আর হাসতে
কাছে দূরের সবাইকে ভীষণ ভালোবাসতে।
হিমেল:
ভালোবাসা শ্রদ্ধা আপনার কাদের প্রতি থাকে?
কদের প্রীতি ¯্নহে আপনায় ছায়া দিয়ে রাখে?
অনন্ত:
বাবা-মা, গুনীজনদের যতটুকু বুঝি,
তাদের ছায়ায় জীবন পথটা সারাবেলা খুঁজি।
বন্ধুরা সব ব্যস্ত অতি-
চালিয়ে নিতে জীবন গতি
উপদেশটা তাদের পেলে
সমাধানটা যায় যে মিলে।
হিমেল:
ছোট থেকেই কিসের প্রতি ঝোক ছিল?
পারা না পারায় শোক ছিল?
কোনটা আপনার শখ ছিল?
আর বুদ্ধিগুলো টক (দুষ্টু) ছিল?
অনন্ত:
শখটা ছিলো নয়ক হবো
আর নয়তো গায়ক হবো
লেখক হয়েই বুঝলাম
হারিয়েছি অনেক কিছু
কষ্ট নিয়েছিল পিছু
তবুও এগিয়ে চললাম।
হিমেল:
এযাবৎকাল কয়টি বই মেলায় প্রকাশ পেল?
কোন বইটি পাঠক হৃদয় ¯পর্শ করে গেল?
অনন্ত:
একটা বই বের হয়েছে অল্প তাহার দাম,
নীল ক্যাফের ভালোবাসা ছিল যে তার নাম।
লেখালেখি পত্রিকাতে ছাপা হচ্ছে প্রায়
বই আবার আসবে নতুন স্রষ্টা যদি চায়।
হিমেল:
লেখক পাঠক সুস¤পর্কে কোনটি করা উচিত?
কোন বিষয়টি লেখক পাঠক গেঁথে রাখেন রুচিত?
অনন্ত:
লিখতে হলে পড়তে হবে
স¤পর্ক তো রাখতে হবে
মেধাটাকে ঝালাই দিলে
অজানাকে জেনে নিলে
সফল ও যে তুমি হবে।
সময়টা আজ কঠিন বড়
লেখা দিয়ে জয় করো
আজকে তুমি কালকে সবার
প্রয়োজন তাই সফল হবার
পরিশ্রম করলে তবে
সবার মনেই বেঁচে রবে।