৩১ জুলাই

৩১ জুলাই, ১৯৬৬ : বঙ্গবন্ধু কারাগারে বসে লিছেছেন, “সোনার খাঁচায়ও পাখি থাকতে চায় না। বন্দি জীবন পশুপাখিও মানতে চায় না। আমরা মানুষ, আমাদের মানতে কি ইচ্ছা হয়! মোহাম্মদউল্লাহ সাহেবের কথা ভাবতে ভাবতে...


বিস্তারিত

৩০ জুলাই

৩০ জুলাই ১৯৭২ : লন্ডনে বঙ্গবন্ধুর পিত্তকোষে অস্ত্রোপাচার করা হয়। অপারেশনের পর বঙ্গবন্ধু জেনেভা যান। ৩০ জুলাই ১৯৭৪ : বঙ্গবন্ধুর পরামর্শে তিনটি প্রতিষ্ঠানকে একত্রীকরণের বিল উত্থাপণ করা হয় জাতীয়...


বিস্তারিত

২৯ জুলাই

২৯ জুলাই ১৯৪৬ : বোম্মাই (এখনকার মুম্বাই) শহরে অল ইন্ডিয়া মুসলিম লীগের কাউন্সিল সভা হয়। নেতারা শেখ মুজিবুর রহমানকে ওই সভায় যোগ দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেন। কিন্তু অর্থের অভাবে তিনি গুরুত্বপূর্ণ ওই...


বিস্তারিত

২৮ জুলাই

২৮ জুলাই ১৯৪৯ : বঙ্গবন্ধু কারাগার থেকে মুক্তি লাভ করেন। পাকিস্তানে এই প্রথমবারের মতো তিনি জেলে নির্যাতন ভোগ করেছিলেন। উল্লেখ্য, বিশ্ববিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারীদের আন্দোলনের একাত্মতা...


বিস্তারিত

২৭ জুলাই

২৭ জুলাই ১৯৪৯ : বঙ্গবন্ধুর জেল থেকে মুক্তিপান। মুক্তি পেয়ে তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ে ফিরে না গিয়ে জাতীয় রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হন। ২৭ জুলাই ১৯৬৬ : কারাগারে অন্তরীণ থাকা অবস্থায় বঙ্গবন্ধু লিখেছেন, ‘আজ...


বিস্তারিত

২৬ জুলাই

২৬ জুলাই ১৯৬৪ : বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে সম্মিলিত বিরোধী দল-কঅপ (কম্বাইন্ড অপজিশন পার্টি গঠিত হয়)। ২৬ জুলাই ১৯৬৫ : রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে কঅপ এর পক্ষ থেকে মিস ফাতিমা জিন্নাহ (পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট...


বিস্তারিত

২৫ জুলাই

২৫ জুলাই ১৯৬৬ : বঙ্গবন্ধু কারাগারে বসে লিখেছেন, “শরীরটা খারাপ হয়ে চলেছে। বসে থাকার জন্যই বোধহয়। খুবই দূর্বল লাগে। আওয়ামী লীগ শান্তিপূর্ণ আন্দোলন চালাতে জনগণকে অনুরোধ করেছে- যে পর্যন্ত ৬ দফা...


বিস্তারিত

২৪ জুলাই

২৪ জুলাই ১৯৬৬ : বঙ্গবন্ধু কারাগারে বসে লিখেছেন, “আব্বার চিঠি পেলাম আজ সকালে। আমি যখন চিঠি পড়ি একজন কয়েদি পাহারায়, লেখাপড়া জানে, জিজ্ঞাসা করল, ‘চিঠি কি আপনার আব্বা লিখেছেন?’ বললাম, ‘হ্যাঁ, তুমি বুঝলে...


বিস্তারিত

২৩ জুলাই

২৩ জুলাই ১৯৬৬ : কারাগারে বঙ্গবন্ধু তাঁর আব্বার কাছ থেকে একটা চিঠি পান। চিঠি পড়েই তাঁর মধ্যে একটা অস্থিরতা তৈরি হলো। ‘কারাগারের রোজনামচা’য় তিনি লিখলেন, ‘বারবার আব্বা ও মার কথা মনে পড়তে থাকে। মায়ের...


বিস্তারিত

২২ জুলাই

২২ জুলাই ১৯৬৬ : বঙ্গবন্ধু কারান্তরে লিখেছেন, “হঠাৎ দেখি পায়ে ডাণ্ডাবেড়ি দিয়ে একজন হাঁটাচলা করছে। বললাম, ‘ব্যাপার কি?” জিজ্ঞাস করলাম, ‘আপনাকে ডান্ডাবেড়ি দিয়েছে কেন?’ বলল, ‘স্যার কোর্টি যেতে হবে,...


বিস্তারিত